1. Aktarbd2@ichamotinews.com : ichamotinews : ichamotinews
  2. zakirhosan68@gmail.com : zakir hosan : zakir hosan
সাইনবোর্ডে গ্রামের নাম লেখা নিয়ে ফের দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ - ইছামতী নিউজ
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৯:৩০ অপরাহ্ন
আপডেট নিউজ :
বগুড়ায় সপ্তাহের ব্যবধানে ডিমের দাম হালিতে বেড়েছে আট টাকা সদরের মথুরা পশ্চিমপাড়া আল মদিনা জমে মসজিদের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন কাজের উদ্বোধন শিল্পী সমিতির সদস্যপদ ফিরে পেলেন জায়েদ, বাদ হতে পারে নিপুণের আবার হিট অ্যালার্ট জারি দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে গ্রাম পুলিশদের – গ্রাম আদালত বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত বগুড়ায় বন্ধুর হাতে প্রাণ গেল বন্ধু তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে করনীয় চলতি মাসেই আরেক দফা দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (৩য় পর্যায়) প্রকল্প -এর আওতায় দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে গ্রাম পুলিশদের নিয়ে ‘গ্রাম আদালত ব্যবস্থাপনা বিষয়ক’ দিনব্যাপী ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয় পাবনা আটঘরিয়ায় জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ শুরু

সাইনবোর্ডে গ্রামের নাম লেখা নিয়ে ফের দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

রাশেদ | বগুড়া প্রতিনিধি
  • Update Time : Sunday, 13 August, 2023
  • ১২৮ Time View

ভৈরবে কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের আকবরনগর ও মিরারচর গ্রামের নাম বাজারের সাইনবোর্ডে লেখা নিয়ে ফের দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয়পক্ষের শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।

শনিবার (১২ আগস্ট) সকাল সাড়ে নয়টা থেকে শুরু হয়ে দুপুর দুইটা পর্যন্ত দুই গ্রামবাসীর মধ্যে তুমুল এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে কিশোরগঞ্জ জেলা সদর থেকে পুলিশের একটি বিশেষ টিম এসে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভৈরব উপজেলার আকবরনগর ও মিরারচর সংযুক্ত এলাকায় অবস্থিত একটি বাজারের নামকরণ নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে দুই গ্রামবাসীর বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে এক মাস আগে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের পাশে বাজার এলাকায় একটি সাইনবোর্ডে বাজারের নাম লেখা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ওই সাইনবোর্ডে সড়ক ও জনপথ বিভাগ ‘আকবরনগর বাজার’ লিখে সড়কের পাশে লাগায়। কিন্তু পার্শ্ববর্তী মিরারচর গ্রামের লোকজন সাইনবোর্ডটি ভেঙে ফেলে। এই নিয়ে গত ৯ জুলাই দুই গ্রামবাসীর মধ্য সংঘর্ষ বাধে।

পরবর্তীতে স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ থানার ওসির মাধ্যমে ঘটনাটির মীমাংসা করা হয়। কিন্তু এক মাস পর আবার একই ঘটনার জের ধরে দুই গ্রামবাসীর মধ্য সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এ সময় উভয় পক্ষ রামদা, লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে অপরকে ধাওয়া করে। ঘটনার সময় কিছু লোক দোকানপাট ভাঙচুর ও লুটপাট করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

মিরারচর গ্রামের বাসিন্দা মাহবুব রহমান বলেন, বাজারের নাম নিয়ে বিশ বছর আগেও দুই গ্রামের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরর্বতীতে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি হাজী কালু মিয়াসহ অন্যরা সালিশি দরবারের মাধ্যমে এলাকার বাসস্ট্যান্ডের নামকরণ করেছিলেন আকবরনগর গ্রামের নামে, আর বাজারের নামকরণ করা হয়েছিল মিরারচর-আকবরনগর গ্রামের নামে। কিন্তু জুলাই মাসে সড়ক ও জনপথ বিভাগ একটি সাইনবোর্ডে বাজারের নামে আকবরনগর গ্রামের নাম লেখে। এই ঘটনার জের ধরেই দুবার সংঘর্ষ হলো।

পরে থানার ওসিসহ নেতৃবৃন্দ সালিশ করে পূর্বের মতোই নামকরণ করে দেন। কিন্তু মিরারচরের গ্রামের মানুষ এটি মেনে নিতে পারেনি। যার ফলে দুই গ্রামবাসীর মধ্য সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে বলে জানান তিনি।

আকবরনগর গ্রামের বাসিন্দা মো. রাসেল আহমেদ বলেন, সড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে সড়কের পাশের একটি সাইনবোর্ডে বাজারের নাম আকবরনগর লেখা হয়েছে। এ বিষয়টিকে নিয়ে মিরারচরের গ্রামবাসী বাজারে তাদের গ্রামের নাম না লেখায় সাইনবোর্ডটি ভেঙে দেয়। এই ঘটনার জেরে দুগ্রামের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আবার এর এক মাস পর মিরারচরবাসীরা জোর করে বাজারের নাম পরিবর্তন করতে চাইলে আমরা আকবরনগরবাসী একত্রিত হয়ে এর প্রতিবাদ করেছি।

কালিকাপ্রসাদ ইউপির চেয়ারম্যান মো. লিটন মিয়া বলেন, আকবরনগর ও মিরারচর গ্রামের নাম বাজারের সাইনবোর্ডে লেখা নিয়ে দুই দল গ্রামবাসী এর আগেও বহুবার সংঘর্ষ করেছে। আজও তারা সরকারি সাইনবোর্ডে বাজারের নাম লেখাকে কেন্দ্র করে আবার সংঘর্ষে মেতে ওঠে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে সংঘর্ষ থামাই। এই সমস্যা সমাধানে দু’পক্ষের সঙ্গে কথা বলে মীমাংসার জন্য বসবেন বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাকছুদুল আলম জানান, দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দীর্ঘ সময় পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সাইনবোর্ডে এলাকার নাম নিয়ে ঘটনাটি ঘটে। এ বিষয়ে মীমাংসার জন্য আমরা চেষ্টা করছি। বর্তমানে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে তিনি জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *